1. admin@durnitybarta24.com : admin :
  2. sumonbpl2020@gmail.com : sumon hasan : sumon hasan
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
লকডাউনে বেনাপোলে বেড়েছে চুরির প্রবণতা বেনাপোলে ডিবির অভিযানে ইয়াবা সহ আটক ২ বেনাপোল পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন বেনাপোলে সুদ ব্যবসায়ী হাসেমের লাগামহীন সুদ বাণিজ্যে ছাত্রলীগ নেতা আল-ইমরানের মৃত্যূতে বেনাপোলে শোকের ছায়া ১ম শ্রেনীর পৌরসভায় নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ: ক্ষমতা কমছে জনপ্রতিনিধিদের! বিশিষ্ট সাংবাদিক আজিজুর রহমান মঞ্জুর প্রাণনাশের হুমকি: থানায় অভিযোগ বেনাপোল পুটখালী সীমান্ত থেকে পিস্তল,গুলি ও ম্যাগজিন সহ আটক-২ শার্শায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টর শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত বেনাপোলে এনজিও কর্মির নিকট থেকে দুই লক্ষ টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ !

লকডাউনে হতাশ শার্শার সাধারণ নিম্নবিত্ত আয়ের মানুষ

  • সময় : বুধবার, ৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ২১৮ বার পঠিত

জে এইচ নাঈম: ৫ই এপ্রিল থেকে চলমান লকডাউনে চিন্তিত হয়ে পড়েছে যশোরের শার্শা উপজেলার বিভিন্ন স্তরের মানুষ। এর আগের টানা লকডাউনের ধকল কাটিয়ে ওঠার আগেই আবারো লকডাউনের খবরে হতাশা বিরাজ করছে সাধারণ  নিম্নবিত্ত আয়ের মানুষ সহ ব্যবসায়ীদের মধ্যে।

বুধবার (৭ই মার্চ) আজ সপ্তাহব্যাপী লকডাউনের ৩য় দিন। ইতোমধ্যে আসন্ন রমজান ও ঈদ কে ঘিরে নিত্যপণ্যের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে। লকডাউনের খবরে আবারও নতুন করে পণ্যের দাম বাড়ছে বলে জানান শার্শা,নাভারন ও বেনাপোল এলাকার খুচরা ক্রেতা ও ব্যবসায়ীরা।

সরকার ঘোষিত সাত দিন লকডাউনের খবর প্রচারের পরই শার্শা উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের মধ্যে তৈরি হয়েছে হতাশা। কেউ কেউ ব্যাগ নিয়ে বাজারে ছুটতে শুরু করেছেন। সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত উপজেলার নাভারন,শার্শা ও বেনাপোল বাজারে বেচাকেনার ধুম পড়েছে। নাভারন বড় বাজারে বাজার করতে আসা ইজিবাইক চালক সবুর বলেন, বাড়িতে যা বাজার আছে তাতে একদিন চলবে। লকডাউনের জন্য দাম বেড়ে যেতে পারে এই আশঙ্কায় বাজার সদয় কিনতে এসেছেন। এদিকে রাস্তায় বাইক চালাতে দিচ্ছেন না পুলিশ। কি করে সংসার চালাবো ছেলে মেয়ে নিয়ে রাস্তার বসার উপক্রম।তিনি আরও বলেন, কাছে যা অর্থ আছে তা দিয়ে তিনি ৩ দিন চলতে পারবেন। লকডাউনের মধ্যে এরপর তিনি কী করবেন তা নিয়ে চিন্তিত। বাজার করতে আসা অন্তত আরও চার-পাঁচ জন একই ধরনের কথা বলেন।

করোনার ঢেউ সামলাতে না পারার কারণে অনেক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরতদের কেউ কেউ এখনো অর্ধেক বেতনেই চাকরি করছেন। এসব মানুষের কাছে জমানো অর্থ নেই বললেই চলে। এমন অবস্থায় নতুন করে লকডাউন না খেয়ে মরতে হবে বলে জানান অনেকেই। শুধু তাই না, গতবারের লকডাউনে সরকারের সাথে সাথে বিভিন্ন ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান নানা ভাবে সাহায্য সহযোগিতা করেছিল। এবার করবে কি তার নিশ্চয়তা নেই। আবার অনেকে বলছেন লকডাউন বাড়াতে পারে সরকার।

বাজার করতে আসা জাহিদ বলেন, গতবারের লকডাউনের সময় সয়াবিন তেল ছিল ৯০ টাকা লিটার। এখন তার দাম ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা। চাউল ছিল ৪৪ টাকা এখন ৫৬ থেকে ৭০ টাকা,মুসরী ডাউল ছিল ৬৫ টাকা এবার ৮০ থেকে ১২০ টাকা। এদিকে, লকডাউন নিয়ে ব্যবসায়ীদের মধ্যেও দেখা দিয়েছে ব্যাপক হতাশা। তাদের মাথায় এক প্রকার হাত উঠেছে। “সামনে রমজান ও ঈদ” গন পরিবহন সহ দোকানপাট বন্ধ থাকায় কি ভাবে ব্যবসা করবেন সেটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় কাটছে ব্যবসায়ীদের। এমন সময় লকডাউনের মুষড়ে পড়েছেন তারা।

এদিকে শার্শা উপজেলার বেশিরভাগ ব্যবসায়ীরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকান খোলা রাখতে চান কেননা গতবার সরকার দোকান ব্যবসায়ীদের কোন অনুদান দেননি তাছাড়া অনেক লোকসান হয়েছে সাথে আবার দোকান মালিকের ভাড়া গুনতে হয়েছে । ব্যবসায়ীরা ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পেতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে দোকান ও শপিংমল খোলা রাখতে প্রসাশনের নিকট জোর দাবী জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2021 Durnity Barta24.com
Theme Customized By Theme Park BD
error: Content is protected !!